ফের নেটিজেনের কটাক্ষের মুখে নুসরত, তাঁর চরিত্রের দাগ নাকি ডিটারজেন্টে ধুলেও যাবে না!

ফের বিতর্কের মুখে নুসরত! তাঁর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই কম বিতর্কের মুখে পড়তে হয়নি তাঁকে। সমস্ত সমালোচনাকে উপেক্ষা করেই গত ২৬ আগস্ট পুত্রসন্তানের জন্ম দেন এই তৃণমূল সাংসদ।

সম্প্রতি একটি ডিটারজেনের বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছেন নুসরত। বিজ্ঞাপনটির ভিডিও নুসরাত তার ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। গর্ভাবস্থায় এই বিজ্ঞাপনের শুট করেছিলেন তিনি। তার সঙ্গে ছিলেন ধারাবাহিকের অভিনেতা রাজা গোস্বামী। বিজ্ঞাপনটির ভিডিও দেখেই নুসরাতকে কটাক্ষ করতে শুরু করেছেন নেটিজেনরা।

নুসরাতের কমেন্ট বক্স ভরে আছে অসংখ‌্য মন্তব‌্যে। কেউ লিখেছেন, ‘চরিত্রের দাগ যাবে কি দিয়ে ধুলে?’ আরেকজন লিখেছেন, ‘নিজের হাতে কখনো কাপড় ধুয়েছো?’ অনেকে আবার নুসরতের ঠোঁট নিয়ে কুমন্তব্য করেছেন। লিখেছেন, ‘মনের দাগ কি দিয়ে দূর করেন?’ আর একজন লিখেছেন—‘তোমার চরিত্রের দাগ কোনো ডিটারজেন্টে যাবে না।’

যে যাই বলুক না কেন এসব কর্ণপাত করেন না নুসরত জাহান। বরাবরের মতো এসব কটাক্ষের বিষয়ে মুখ খুলেননি এই অভিনেত্রী।

অভিনেতা যশ দাশগুপ্তর সঙ্গে নুসরাতের প্রেম টলিউডের ওপেন সিক্রেট। অন্তঃসত্ত্বা নুসরাতকে আগলে রেখেছেন যশ। হাসপাতালে ভর্তি করানো থেকে শুরু করে এখনো নুসরতের পাশে রয়েছেন তিনি। নেটিজেনরা বারবার দাবি করেছেন—নুসরতের সন্তানের বাবা অন‌্য কেউ নন, বরং যশ দাশগুপ্ত। কিন্তু গুণাক্ষরেও বিষয়টি স্বীকার করেননি নুসরত-যশ। তবে কিছু দিন আগে কলকাতা পুরসভার ওয়েবসাইটে জন্ম সনদে দেখা যায় নুসরত পুত্র ঈশানের বাবা যশ দাশগুপ্ত।

২০১৯ সালের ১৯ জুন ভালোবেসে ধর্মীয় রীতি মেনে নিখিল জৈনর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন নুসরাত জাহান। তবে এক বছরের মাথায় তাদের দাম্পত‌্য জীবনে কলহ শুরু হয়। দীর্ঘদিন আলাদা থাকার পর কয়েক মাস আগে নুসরত জানান, নিখিলের সঙ্গে লিভ-ইন করেছেন, তাদের রেজিস্ট্রি বিয়ে হয়নি। তবে যশ-নুসরত বিয়ে করেছেন কিনা তা জানা যায়নি! আর এই নিয়েই বারবার নেটিজেনের কটাক্ষের মুখে পড়তে হচ্ছে নুসরতকে। তবে সমালোচনাকে যে তিনি খুব বেশি গুরুত্ব দেন না, সেটাও তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন।

সাতসকাল ফিচার
সাতসকাল ই-পেপার
সাতসকাল নিউজ
error: Content is protected !!